1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. ittehadnews24@gmail.com : Ittehad News24 : ইত্তেহাদ নিউজ২৪
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৪:০২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মুন্সিগঞ্জের কামারখোলা খানকায়ে ছালেহীয়া মুহিব্বিয়া দীনিয়া মাদ্রাসা কমপ্লেক্সে জামাতে উলার ছাত্রদের ছবক অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বাংলাবাজার খানকায়ে নেছারিয়ায় তা’লিমী জলসা অনুষ্ঠিত Malette Poker Jetons de Poker Boutique en ligne পটুয়াখালীতে প্রফেসর একেএম শহীদুল ইসলাম ট্রাস্ট উদ্যোগে ৪০ এতিম ও দুঃস্থ শিক্ষার্থীকে নগদ অর্থ প্রদান শতাব্দীর ঐতিহ্যবাহী ছারছীনা আলিয়া মাদ্রাসার নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন মাওলানা রূহুল আমিন আফসারী পাথরঘাটা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা কাজী মুনসুর আহমেদ (রহঃ) মৃত্যু বার্ষিকীতে দোয়া ও মিলাদ অনুষ্ঠিত আমল যত বেশি বেশি করবেন আক্বীদা তত মজবুত হবে -ছারছীনার পীর ছাহেব। পটুয়াখালীতে জাতীয় সংসদের নবনির্বাচিত সাংসদ নাজনীন নাহারকে ফুলেল সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সর্বদা কুরআন ও সুন্নাহ অনুযায়ী আমল করার চেষ্টা করাই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য -ছারছীনার পীর ছাহেব। কোস্ট গার্ডকে ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
শিরোনাম
শতাব্দীর ঐতিহ্যবাহী ছারছীনা আলিয়া মাদ্রাসার নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন মাওলানা রূহুল আমিন আফসারী আমল যত বেশি বেশি করবেন আক্বীদা তত মজবুত হবে -ছারছীনার পীর ছাহেব। পটুয়াখালীতে জাতীয় সংসদের নবনির্বাচিত সাংসদ নাজনীন নাহারকে ফুলেল সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত সর্বদা কুরআন ও সুন্নাহ অনুযায়ী আমল করার চেষ্টা করাই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য -ছারছীনার পীর ছাহেব। কোস্ট গার্ডকে ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলছে সরকার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছারছীনা দরবার শরীফের তিনদিনব্যাপি বার্ষিক মাহফিল শুরু নিভে যাওয়া প্রদীপে আলো জ্বেলেছেন প্রফেসর আব্দুর রশীদ টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধা অগ্রযাত্রায় খামারিদের অন্তর্ভুক্ত করবে স্মার্ট ফারমার্স কার্ড : প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী আন্দোলন করেই তত্ত্বাবধায়কের দাবি আদায় করব -বিএনপির সেমিনারে মির্জা ফখরুল

‘রাজনীতি করুক কিন্তু আমার সাধারণ মানুষের গায়ে যেন হাত না দেয়’ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • আপডেট করা হয়েছে রবিবার, ৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৩৯ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার :

বিএনপির বিচার প্রকৃতিই করছে: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘অগ্নি সন্ত্রাসের আর্তনাদ: বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের খণ্ডচিত্র’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাসের তীব্র নিন্দা জানান এবং নিহত ও আহত পরিবারের দুঃখগাথা শুনে সমবেদনা প্রকাশ করেন।
আগুন সন্ত্রাসের শিকার মানুষেরা এ সময় বিচার দাবি করেন। প্রধানমন্ত্রী তাদের সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, আগুন সন্ত্রাসে সাড়ে তিন হাজার মানুষ আহত হয়েছিল। সেই দুঃসময়ের কথা যেন দেশবাসী ভুলে না যায়। বিএনপির বিচার করতে হচ্ছে না, প্রকৃতিই তাদের বিচার করছে।
এ সময় শেখ হাসিনা বলেন, সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ করলে কেউ রক্ষা পাবে না। স্বাধীনতার পর থেকে কেউ রক্ষা পায়নি, ভবিষ্যতেও পাবে না। সবারই বিচার করা হবে।
বিএনপির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গণতন্ত্র যখন প্রতিষ্ঠা হয়েই গেছে। তখনই সরকার উৎখাতের নামে মানুষের এসব ক্ষতি তারা কীভাবে করতে পারে? এই আন্দোলন কেমন আন্দোলন? মানুষকে কষ্ট দিয়ে কী ধরনের আন্দোলন করতে চায় বিএনপি?
তিনি বলেন, রাজনীতি করার অধিকার সবারই আছে। সবাই রাজনীতি করুক; কিন্ত সাধারণ মানুষের গায়ে হাত দিলে তার আর রেহাই নেই। মানুষের সুন্দরভাবে বাঁচার অধিকার রয়েছে। সেই অধিকার নষ্ট করা চলবে না। শান্তির বাংলাদেশ চাই আমরা, হানাহানি-হত্যার বাংলাদেশ চাই না।
বিএনপি-জামায়াতকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশবাসীর কাছে আমার আহ্বান- কেউ রাজনীতি করলে সুষ্ঠভাবে রাজনীতি করুক, কিন্তু সাধারণ মানুষের গায়ে হাত দিলে তাদের রক্ষা নেই। এটা সহ্য করা যায় না, এটা কোনো মানুষ সহ্য করতে পারে না।সরকারপ্রধান বলেন, এ বিষয়ে দেশবাসীকে সজাগ থাকতে বলব যাতে এই ধরনের ঘটনা যেন কেউ ঘটাতে না পারে।

জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে রবিবার (৬ নভেম্বর) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আয়োজিত ‘অগ্নিসন্ত্রাসের আর্তনাদঃ বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিসন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের খণ্ডচিত্র’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ২০১৩-১৪-১৫ সালে বিএনপি ও জামায়াতের আন্দোলনের নামে পেট্রোলবোমায় নিহতদের পরিবার ও আহতরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার চান। তারা এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের মাধ্যমে কঠোর শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে ওই সময়ের বিএনপি ও জামায়াতের তাণ্ডবের ওপর নির্মীত একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়। এরপর প্রধানমন্ত্রী উপস্থিত আহত ও নিহতদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, বিদেশি মিশনের কূটনৈতিক, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এবং আহত ও নিহতদের পরিবারের সদস্যরাও ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালের দুঃসময়ের পর আমরা যখন গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু করেছি তখনই সরকার উৎখাতের নামে অগ্নিসন্ত্রাস, খুন শুরু হয়। সেই ২০০১ সাল শুরু, এরপর আবার ২০১৩,১৪,১৫ সালে বার বার, কীভাবে মানুষ পারে জীবন্ত মানুষকে আন্দোলনের নামে পুড়িয়ে মারতে। এটাই নাকি আন্দোলন! এই আন্দোলনতো আমরা কখনো দেখিনি। সেই স্কুল জীবন থেকেই আন্দোলনে শরিক হয়েছি। আমরাও আইউব খানের বিরুদ্ধে, জিয়ার বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছি। আমরা কখনো এটা স্বপ্নেও ভাবিনি পেট্রোলবোমা মেরে সাধারণ মানুষকে হত্যা করে, আন্দোলন করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি ঘোষণা দিল অবরোধ এবং হরতাল। কিন্তু কাজ হলো কী? মানুষকে হত্যা করা। এখানে যারা উপস্থিত আছে তারা খুবই সামান্য কয়েকজন। শুধুমাত্র ২০১৩ সালেই বিএনপি ও জামায়াত প্রায় ৩ হাজার ৬শ মানুষকে অহত করেছে।

শেখ হাসিনা দেশবাসীকে সেই দুঃসময়ের কথা ভুলে না যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর দেশে কিছুটা স্থিতিশীলতা আনতে পেরেছি। মানব কল্যাণে করে যাচ্ছি। এরই মধ্যে এই ধরনের আঘাত, এটা চরমভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন। এসব কাজে যারা জড়িত ছিল তাদের বিচারের কাজ চলছে। অনেকের বিচার হয়ে শাস্তি হচ্ছে। কিন্তু এই কাজের যারা হুকুম দিয়েছে সেই হুকুমদাতাদের কথাও ভেবে দেখেন। জানি না মানুষ কিভাবে তাদের পাশে দাঁড়ায়, তাদের সমর্থন করে।

এমন কাজ যেন আর কেউ ঘটাতে না পারে এজন্য দেশবাসীকে সজাগ থাকতে আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

Categories