1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. ittehadnews24@gmail.com : ইত্তেহাদ নিউজ২৪ : ইত্তেহাদ নিউজ২৪
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:০৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে ১৮ কোটি মানুষের ৩৬ কোটি হাতের সম্মিলিত প্রয়াসে আমাদের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ ঘটেছে : আইজিপি পটুয়াখালীতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত আযানের পূর্বে ও পরে দরুদ এবং সালাম পড়ার বিধান সুন্নতে নববীর আমলের পরিবেশ করতেই সমগ্র বাংলায় দীনিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করছি – ছারছীনার পীর ছাহেব বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের মাধ্যমে নিরস্ত্র বাঙালি সশস্ত্র বাঙালিতে রূপান্তরিত হয়েছিল : তথ্যমন্ত্রী হোয়াইট হাউসে হিজাব পরে প্রেস ব্রিফিং, ইতিহাস গড়লেন সামিরা কমনওয়েলথে অনুপ্রেরণাদায়ী শীর্ষ ৩ মহিলা নেতার অন্যতম শেখ হাসিনা -কমনওয়েলথ মহাসচিব বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ পৃথিবীর কালজয়ী ভাষণগুলোর অন্যতম : প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পূণ্যভুমি -ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।
শিরোনাম
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে ১৮ কোটি মানুষের ৩৬ কোটি হাতের সম্মিলিত প্রয়াসে আমাদের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ ঘটেছে : আইজিপি পটুয়াখালীতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ পালিত বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের মাধ্যমে নিরস্ত্র বাঙালি সশস্ত্র বাঙালিতে রূপান্তরিত হয়েছিল : তথ্যমন্ত্রী কমনওয়েলথে অনুপ্রেরণাদায়ী শীর্ষ ৩ মহিলা নেতার অন্যতম শেখ হাসিনা -কমনওয়েলথ মহাসচিব বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ পৃথিবীর কালজয়ী ভাষণগুলোর অন্যতম : প্রেসিডেন্ট সরকার পবিত্র ঈদ-ই-মীলাদুন্নবী (সঃ) দিবসটিকে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করায় ছারছীনার পীর ছাহেবের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ক্যান্সারের ওপর বেশি করে গবেষণার গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আইন শৃঙ্খলা সক্ষমতা বাড়া‌তে বাংলাদেশ পুলিশে যুক্ত হচ্ছে দুটি অত্যাধুনিক হেলিকপ্টার এসব কথায় কান দিলে চলে না: টিকার সমালোচনা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী

নবী কারীম (সাঃ) ও সাহাবায়ে কেরাম (রাঃ) এর যুগে নববর্ষ পালনের রেওয়াজ ছিল কিনা ?

  • আপডেট করা হয়েছে শনিবার, ২২ আগস্ট, ২০২০
  • ১৩০ বার পড়া হয়েছে
ধর্মীয় প্রতিবেদকঃ
আজ ১ মুহাররম ১৪৪২ হিঃ, শুক্রবার। নবী কারীম (সাঃ) ও সাহাবায়ে কেরাম (রাঃ) এর যুগে নববর্ষ পালনের রেওয়াজ ছিল কিনা জানিনা। তবে এতটুকু বলতে পারি ষে , বিভিন্ন কারণে হিজরী নববর্ষ তাতপর্য বহন করে।
১. আল্লাহ তায়ালা এরশাদ করেছেন- ان عدة الشهور عند الله اثنا عشر شهرا الاية. এ আয়াতের মর্মানুযায়ী মাস ও বর্ষ গননায় বছরের প্রথম মাসের প্রথম দিনটি গুরুত্বের দাবী রাখে।
২. মুহররম মাসের 10 তারিখ ঐতিহাসিক ঘটনাবহুল ও ফজীলতপূর্ণ আশুরা দিবস স্মরণ রাখতে ও পালন করতে মাসের প্রথম দিন তথা হিজরী নববর্ষ মনে রাখা অপরিহার্য।
৩. আল্লাহর বাণী وليال عشر এর তাফসীরে কেউ কেউ আল্লাহর শপথকৃত মহিমান্বিত দশ রাত্রি হিসেবে মুহাররম মাসের প্রথম দশ রাত্রির কথা বলেছেন। সুতরাং মহিমান্বিত দশ রজনীর প্রথম দিন তথা হিজরী নববর্ষ তাত্পর্যবহ।
৪. পবিত্র কুরআনের বাণী يسالونك عن الاهلة قل هي مواقيت للناس والحج الاية এর মর্মার্থ অনুযায়ী সকল মাসের চন্দ্রের উদয়-অস্তের চেয়ে বছরের প্রথম মাসের চন্দ্র উদয়কে একটু বেশী গুরুত্ব দেয়াই স্বাভাবিক।
৫. হিজরী সন গননা করা হয় মহানবী সাঃ এর হিযরতকে স্মরণ করে। হিযরত ছিল ইসলামের প্রসার ও মহা বিজয়ের সূচনা। আজ থেকে 1441 বছর পূর্বে ইসলামের দিগ্বিজয়ের দ্বার উন্মুক্ত হয়েছিল। নববর্ষের দ্বারা ইসলামের প্রাচিনত্বে আরেকটি পালক যুক্ত হল।
৬.  ইসলামের অনেক ইবাদত মাস ও বছরের সাথে সম্পৃক্ত। তাই নববর্যের হাত ধরে উক্ত ইবাদতের জন্য প্রতীক্ষার পালা শুরু হয়।
তবে এ নববর্ষ দ্বারা নতুন প্রেরণা লাভ করা ব্যতীত বিশেষ কোন মাহাত্বের দাবী করা বিদয়াত তথা পরিতাজ্য হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন